পেপাল বাংলাদেশে চালু হবে না আজীবন

0

পেপাল বাংলাদেশে চালু হবে না এর দুটি কারণ আছে একটি হচ্ছে বাংলাদেশের এফএম সিস্টেমটি হচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে বাংলাদেশের যেমন বিকাশ রকেট নগদ তেমনি ওয়ার্ল্ডওয়াইড একটি পেমেন্ট সিস্টেম পেপার যদিও এটি আমেরিকা প্রতিষ্ঠান ব্যাংক পেপাল বাংলাদেশে চালু হবেনা কারণ হচ্ছে যদি পেপাল চালু হয় তাইলে বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ প্রবেশ করবে তখন বাংলাদেশের যে এসএমএস সিস্টেম গুলো আছে তারপরে আরো আছে নতুন এসেছে আমাদের উপায় সিস্টেমগুলো বন্ধ হয়ে যাবে তাদের জন্য বাংলাদেশ সরকারকে বাংলাদেশ ।

এছাড়া বাংলাদেশের বেসরকারি ব্যাংকগুলো বাংলাদেশ সরকার থেকে বা বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে একটি অনুমোদন বা রুল জারি করে এই সিস্টেমটি চালু রেখেছে যদি পেপাল চলে আসে বাংলাদেশের তাহলে তারা সেই সুবিধাগুলো হারাবে বিকাশ পেমেন্ট সিস্টেম মানে লেনদেনের হারাবে তখন পেপাল ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ থেকে মানিলন্ডারিংয়ের একটা আশঙ্কা দেখা যাবে বিদেশে টাকা পাচার করবে এজন্য বাংলাদেশ সরকারের ভীতির মধ্যে ছিল বা আছে যদিও বিকল্প ভাবে বিদেশ থেকে টাকা লেনদেন নিয়ে আসার জন্য একটি অংশও জুম বাংলাদেশ অনুমোদন পেয়েছে । যদিও জুম পেপাল এক জিনিস নয় তবুও পেপাল ইউজ করে নানা ধরনের সার্ভিস পাওয়া যায় ইন্টারন্যাশনাল ভাবে। অনলাইনে ব্যবসা বা কোন সার্ভিস চালু করতে পেপাল এর বিশেষ প্রয়োজন হয়।

কিন্তু দুঃখের বিষয় যে বাংলাদেশ থেকে এটা করা যায় না । অনেকেই আছে যারা একেবারে বিগেনার এন্টারপ্রেনার তাদের ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার কারেন্সি কার্ড নেই । যার কারণে ফেইসবুক বুষ্টিং ডোমেইন কেনা বা হোস্টিং কেনা এসব করতে পারছে না। যদি পেপাল চালু থাকত তাহলে ছোট ছোট মার্কেটিং বা ইন্টারন্যাশনাল ভাবে কিছু কোন কিছু কেনা সম্ভব হতো।

যা দিয়ে বিদেশে অবস্থানরত শ্রমিক বা রেমিটেন্স যোদ্ধা বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে পারে । এটি শুধুমাত্র করা হয়েছে রেমিটেন্স গ্রহণের জন্য ।

অনলাইন অভিজ্ঞতায় আমার মন্তব্য

পেপাল কে বাংলাদেশে সীমিত আকারে হলেও চালু রাখা দরকার । যেমনটি ইন্ডিয়া তে চালু করা হয়েছে। ইন্ডিয়াতে পেপাল শুধু ইন্ডিয়ান ইউজার দের জন্য ইউজ করতে পারবেন। অনলাইনে কেনাকাটা বা লেনদেন এ কিছু বাধ্যবাধকতা রেখেছে যাতে দেশের টাকা বাইরে যেতে না পারে।

  1. পেপাল কে নির্দিষ্ট কিছু নিয়কানুন দিয়ে চালু করা যেতে পারে
  2. বাংলাদেশ এর এমএফএস গুলো যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে কিছু রুলেস দিয়ে দেওয়া যেতে পারে
  3. বাংলাদেশর পেপাল ইউজার দের অনলাইনে বিশেষ করে বিদেশ থেকেই কিছু কেনা কাটা করতে পারেন সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।
  4. বাংলাদেশর অধিকাংশই বৈদেশিক হোস্টিং প্রোভাইডার থেকে হোস্টিং নিতে চাই আবার অনেকই ফেইসবুক এ বুস্ট করতে চান তাদের এই সুবিধা দিতে পারেন।
  5. Freelancer,Upwork, fivver এ অনেকের earn করা টাকা যাতে পেপাল থেকে বাংলাদেশের ব্যাংকে নিতে পারেন সেই দিকে একটু নজর দিতে হবে।

Leave your vote

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Log In

Forgot password?

Forgot password?

Enter your account data and we will send you a link to reset your password.

Your password reset link appears to be invalid or expired.

Log in

Privacy Policy

Add to Collection

No Collections

Here you'll find all collections you've created before.